লাদাখ যাবেন কীভাবে ?

ট্রাভেল এজেন্ট ছাড়া নিজেরা অবশ্যই লাদাখ যেতে পারবেন। তবে সঙ্গে আরও একটি পরিবার থাকলে গাড়িভাড়া অর্ধেক হয়ে যাবে।

লাদাখ প্লেনে গেলে খরচ একটু বেশি হয়, কিন্তু যাওয়া-আসা সহজ হয়ে যায়। দিল্লি থেকে লাদাখের প্লেন খুব সকালে ছাড়ে। তাই রাতের ফ্লাইটে দিল্লি পৌঁছে, দিল্লি এয়ারপোর্টে রাতে কয়েকঘন্টা কাটিয়ে ভোরবেলা লে-র প্লেনে উঠে পড়তে পারেন।

তাতে একটা সুবিধা, লে থেকে গাড়িভাড়া মোটামুটি ৩০–৩৫ হাজার টাকায় হয়ে যাবে। নইলে মানালি বা শ্রীনগর ঘুরে গেলে গাড়িভাড়া ৬৫ হাজার লাগবে।

সড়কপথে লাদাখ যাওয়ার দুটি উপায়। একটি হলো, শ্রীনগর ও কারগিল হয়ে লে পৌঁছুনো। দ্বিতীয় পথ, মানালি-কেলং-সারচু হয়ে লে পৌঁছুনো।

কিন্তু দ্বিতীয় পথ অর্থাৎ মানালি হয়ে গেলে Acute Mountain Sickness (AMS)-এর প্রাবল্যে অসুস্থ হওয়ার সম্ভাবনা অনেকটাই বেশি। কিন্তু শ্রীনগর-কারগিল হয়ে গেলে Acclimatization সহজ হয়ে যায় ও শারীরিক অসুস্থতার সম্ভাবনা কমে যায়।

লাদাখের হোটেলে এক ভদ্রলোকের সঙ্গে আলাপ হলো, তিনি একটা মিনিবাস ভর্তি করে আত্মীয়-বন্ধুরা মিলে মানালি হয়ে লাদাখ আসছিলেন। তাঁরা ২৭ জন সব্বাই অসুস্থ হয়ে মিলিটারি হসপিটালে দুটো দিন কাটাতে বাধ্য হয়েছিলেন।কিন্তু  সোনামার্গ-দ্রাস-কারগিল হয়ে গেলে অসুস্থতার সম্ভাবনা বহুলাংশে কমে যায়।

কলকাতা থেকে মানালি বা শ্রীনগর পৌঁছুনোর ঝামেলা কম নয়, তাই ফ্লাইটে লে যাওয়ার কথা ভেবে দেখতে পারেন। দিল্লি থেকে ফ্লাইটে গেলে, সেইদিনটা লে-র হোটেলে বিশ্রাম নিয়ে কাটাতে হবে, সন্ধের সময় মার্কেটে বেরুতে পারেন।

প্যাংগং ও সোমোরিরি যেতে সরকারি অনুমতি পত্র লাগে। আমরা হোটেলের রিসেপশানে বলেছিলাম, ওরাই অনুমতিপত্র জোগাড় করে দিয়েছিলেন। নিজেদের ভোটার কার্ডের কপি দিলেই চলবে। সরকারি খরচ জনপ্রতি ৪০০ টাকা। কিন্তু হোটেল ৬০০ টাকা নিয়েছিল।

লাদাখের বেড়ানো

২ দিন লোকাল সাইট সিয়িং। ২ দিন নুব্রা ভ্যালি। ১ দিন প্যাংগং। ১ দিন সোমোরিরি। ১ রাত্রি সারচু/জিসপা/কেলংয়ে হল্ট। অর্থাৎ একসপ্তাহের প্রোগ্রামে ঘুরে আসা যায়। কিন্তু শ্রীনগর অথবা মানালি ঘুরে গেলে কমপক্ষে আরও পাঁচটি দিন হাতে রাখতে হবে।

যাত্রা শুরুর আগের দিন থেকে, ডায়ামক্স ট্যাবলেট (Diamox Tablet) খাওয়া শুরু করতে পারেন। পরপর চারদিন ৪টি ডায়ামক্স খেলে উচ্চতাজনিত অসুস্থতা (AMS) থেকে রেহাই পাবেন (দয়া করে চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে নেবেন)। আমি অবশ্য ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়াই হিমাচলে এবং লাদাখে ডায়ামক্স ট্যাবলেট খেয়ে সব অসুবিধা থেকে রেহাই পেয়েছিলাম। আমরা লে-তে যে হোটেলে ছিলাম, সেই হোটেলের প্রতিটি ঘরে একটা ছোট্ট নোটিশ সাঁটা ছিলো, তাতে পরামর্শ দেওয়া হয়েছে ডায়ামক্স ট্যাবলেট খাওয়ার জন্য।

  • লে শহরের ড্রাইভার :
  • (ফোনে কথা বলে দরদাম করে রাখতে পারেন)
  • সিগনালের অসুবিধার কারণে এদেরকে সবসময় ফোনে পাবেন না, তাই বারবার ডায়াল করতে হবে। চাম্বা 09596979829,
  • তেনজিং 09622963877,
  • জাকির 09419242966,
  • তাশি 09469630613,
  • থিনলে 09797313132
  • লে শহরের হোটেল :
  • (ফোনে কথা বলে বুকিং করে রাখতে পারেন)
  • Hotel Lingzi 08492053181, 01982-252020
  • Hotel Ga-Ldan 09419178842, 08492812183 (এই হোটেলগুলো বাজারের জমজমাট এলাকায় অবস্থিত। ডাবলরুমের ভাড়া– ব্রেকফাস্ট ও ডিনার-সহ ২৮০০ টাকা থেকে ৩১০০ টাকা
  • নুব্রা ভ্যালিতে ডিসকিট শহরে
  • (ফোনে কথা বলে বুকিং করে রাখতে পারেন)
  • Hotel Sten-Del 01980-220196, 09419348223 -এটা অত্যন্ত ভালো হোটেল।
  • ডাবলরুমের ভাড়া– ব্রেকফাস্ট ও ডিনার-সহ ৩২০০ টাকা।
  • প্যাংগং ও সোমোরিরিতে অন-স্পট খুব সাধারণ মানের হোটেল ও হোম স্টে পাবেন।
  • তবে লাদাখের হোটেলে বললে ওরা বুকিংয়ের জন্য ইমেল করবেন –
  • info@campsofladakh.com এবং ফোন করতে পারেন — +91-11-40580334 / 40580335 / 9818226475 / 9811780174 —
  • দিল্লির একটা সংস্থা এই ক্যাম্প চালায়।
Please follow and like us:
0

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

CAPTCHA


error: Content is protected !!