টানা সাড়ে ১৭ ঘণ্টা উড়ার পর নামলো বিশ্বের সবচেয়ে দীর্ঘযাত্রার ফ্লাইট

সিঙ্গাপুর থেকে উড্ডয়ন করা বিশ্বের সবচেয়ে দীর্ঘযাত্রার ফ্লাইটটি অবশেষে প্রায় সাড়ে ১৭ ঘণ্টা পর নিউইয়র্কে অবতরণ করেছে। সিঙ্গাপুর এয়ারলাইন্সের বিরতিহীন ওই ফ্লাইটটি ইতিহাসের প্রথম দীর্ঘ যাত্রা বলে ইতোমধ্যেই রেকর্ড বুকে জায়গাও করে নিয়েছে।

গত  ১২ অক্টোবর ১৭ ঘণ্টার বেশি সময় ধরে একটানা আকাশে উড়ে ১৭ হাজার ৭০০ কিলোমিটার পথ অতিক্রম করে। এর আগে ১১ অক্টোবর সিঙ্গাপুর থেকে ফ্লাইটটি উড্ডয়ন করে।

রেকর্ড গড়া এ ফ্লাইট নিয়ে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম বলছে, সিঙ্গাপুর এয়ারলাইন্সের এসকিউ২২ ফ্লাইট যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কের লিবার্টি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করেছে। যা ১৭ ঘণ্টা ২৫ মিনিট আগে সিঙ্গাপুর থেকে উড্ডয়ন করেছিল। পরে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ ফ্লাইটটিকে স্বাগত জানায়। নিউইয়র্ক স্বাগতম! বলে একটি ‘স্লোগানও’ তোলা হয় এসময়।

প্লেনটি ছিল ড্রিমলাইনারের চেয়ে অনেক বড়। দূরত্ব এবং বেশি ইকোনমিক ক্লাসের কারণে কেবল ১৬১ জন যাত্রী নিয়ে প্লেনটি উড্ডয়ন করে। দীর্ঘ সময়ের ভ্রমণ হওয়ায় প্লেনটিতে ইকোনমিক ক্লাস বেশি না থাকলেও সমস্যা। সাধারণত এইরকম একটি প্লেনে ৩২০ জন যাত্রীর বেশি বহন করা যায়। এর কারণ এটাতে বড় ইকোনমি ক্লাস সুবিধা দিতে হয়।

সিঙ্গাপুর এয়ারলাইন্সের যারা দায়িত্বে ছিলেন ওই প্লেনে তারা অনেক পরিশ্রম করেছেন বলে উল্লেখ করা হয়েছে সংবাদমাধ্যমে। প্লেনের কর্মীরা সার্বক্ষণিক যাত্রী সেবায় নিয়োজিত ছিলেন। সেইসঙ্গে একটানা দীর্ঘ সময় দায়িত্ব পালন করে তারাও একটি নতুন অভিজ্ঞতা অর্জন করেছেন বলে মনে করা হচ্ছে।

পাইলট তার সম্পূর্ণ পেশাদারিত্ব এবং দক্ষতায় কোনো ধরনের ঝাঁকুনি ছাড়াই ফ্লাইটটি মসৃণভাবে অবতরণ করেন। যাতে যাত্রীদের মধ্যে দীর্ঘ পথের ক্লান্তির কোনো ছাপ পাওয়া যায়নি। বরং অন্যান্যের চেয়ে অনেকটা আরামদায়কই ছিল। খাদ্য এবং পানীয় ছিল একদম উন্মুক্ত। তাছাড়া বিছানা সুবিধাও ছিল অনেক ভালো। কোনো ঝাঁকুনি ছাড়াই কেবিনের বিছানায় ঘুমিয়ে সময় পার করেছেন যাত্রীরা। যদিও সিঙ্গাপুর অনেক বছর ধরে প্লেনে যে বিছানার ব্যবস্থা করে আসছে, সেটাই ছিল এখানেও।

সংবাদমাধ্যম বলছে, প্লেনের কর্মীরা অত্যন্ত মনোযোগ দিয়ে  অসাধারণ দায়িত্ব পালন করেছেন। এমনকি ১৭ ঘণ্টার ওই ভ্রমণে তারা একদম শেষপর্যন্ত অনেক প্রাণবন্ত এবং সক্রিয় ছিলেন। অবতরণের চার ঘণ্টা আগে পর্যন্ত তারা কোনো বিশ্রামও নেননি ভালো করে। সবকিছু মিলেই যা আশা করা হয়েছিল তার চেয়ে অনেক সুবিধা পাওয়া গেছে এসকিউ২২-এ।

অত্যধিক জ্বালানি সংগ্রাহক এ প্লেনটি দুই ইঞ্জিনের। যাত্রার আগে ধারণা করা হয়েছিল প্লেনটি সিঙ্গাপুর থেকে নিউইয়র্কে পৌঁছতে ১৯ ঘণ্টা লাগতে পারে। কিন্ত ওই সময়ের প্রায় দেড় ঘণ্টা আগেই প্লেনটি অবতরণ করতে সক্ষম হলো।

প্লেনটিতে ১০০ ইকোনমিক ক্লাস আসন সরবারহ করা হয়। নতুন এবং দীর্ঘ ওই ফ্লাইটটি প্রাথমিকভাবে সপ্তাহে তিনবার সিঙ্গাপুর থেকে নিউইয়র্কে যাবে। এ মাসেরই ১৮ তারিখ আরেকটি ফ্লাইট যাবে ‘সিঙ্গাপুর টু নিউইয়র্ক’। এছাড়া রুটটিতে আরও প্লেন যুক্ত হলে পরেই স্বাভাবিক যাত্রা শুরু হবে।

এর আগে ২০১৩ সালে ওই রুটে ফ্লাইট চালু হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু দীর্ঘ যাত্রা সক্ষমতা নিয়ে ত্রুটি বা সংকট থাকায় সে সময় আর না হলেও আবশেষে সফলভাবে চালুই হলো।

Please follow and like us:
0

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

CAPTCHA


error: Content is protected !!